Saturday, September 14, 2019

কাশ্মীরে দমনপীড়ন চালাচ্ছে হিটলার মোদি:ইমরান

কাশ্মীরে দমনপীড়ন চালাচ্ছে হিটলার মোদি:ইমরান

কাশ্মীরে দমনপীড়ন চালাচ্ছে হিটলার মোদি:ইমরান
net21bd.com
ইমরান খান   ছবিঃ সংগৃহীত 


মায়ানমারের রোহিংগাদের দমনপীড়ন পর ভারতে মোদি সরকার জম্মু কাশমিরে সাধারন ধর্মপ্রান মুসলমাদের উপর একই কায়দায় সেনাবাহিনী দ্বারা নির্মম অত্যাচার ও হত্যাযোগ্য চালিয়ে যাচ্ছে।

অবরুদ্ধ জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দাদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে আজাদ কাশ্মীরের মুজাফফরাবাদে শুক্রবার প্রতিবাদ র‌্যালি করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পরে এক সমাবেশে ভাষণ দেন তিনি। পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কাশ্মীরে বিক্ষোভ এবং ভিন্ন মতাবলম্বীদের ওপর ভারতের দমনপীড়ন বিশ্বের আরও অনেক মুসলিমকে উগ্রবাদের দিকে ঠেলে দেবে। কাপুরুষ মোদি কাশ্মীরের জনগণের ওপর দমনপীড়ন চালাচ্ছে।’ খবর ডনের।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করে রাজ্যটিকে কেন্দ্রশাসিত দুটি আলাদা অঞ্চলে ভাগের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে।

তারপর থেকেই অঞ্চলটিতে অস্থিরতা বিরাজ করছে। কাশ্মীর কর্তৃপক্ষ এ পর্যন্ত প্রায় ৪ হাজার জনকে গ্রেফতারও করেছে বলে এক সরকারি প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

কাশ্মীর পরিস্থিতিতে কেন্দ্র করে পাকিস্তানের সঙ্গে উত্তেজনা দিন দদিন বেড়েছে ভারতের।

বিশ্বের সকল মুসলিম নেতাদের একত্রিত হয়ে এমন পাশবিক নির্যাতনের বিরুদ্বে ঐক্যমত গড়ে তুলতে আহবান জানিয়েছেন।
আফিফেরর ব্যাটে টাইগারদের জয়
আফিফেরর ব্যাটে টাইগারদের জয়
আফিফের ব্যাটে টাইগারদের জয়


অবশেষে উত্তেজনাকর মূহুত্ব নিজের পক্ষে সায় দিয়েছে যার জন্য অপেক্ষা করেছিল হাজারো ক্রিকেটপ্রেমী

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েছেন আফিফ হোসেন

রানটা খুব বেশি না হলেও চ্যালেঞ্জিং। জিততে হলে ১৮ ওভারে করতে হবে ১৪৫। এ লক্ষ্যে ভালো শুরু করার পরেও শুরু হয়েছিল পতনের মিছিল। একপর্যায়ে ছিল হারের চোখ রাঙানি। কিন্তু ১৯ বছর বয়সী এক তরুণ ভেবে রেখেছিলেন অন্য কিছু। আশ্চর্য পতন থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয়। সে পথে ভীষণ চাপের মধ্যেও রানের গতি বাড়িয়ে পাল্টে দেন ম্যাচের মোড়।

তাতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেটের স্বস্তির জয় তুলে নিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজে শুভ সূচনা করতে পেরেছে বাংলাদেশ। আর হ্যাঁ, সেই তরুণটি ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে আটে ব্যাট করতে নামা আফিফ হোসেন।

শুরুটা ভালোই করেছিলেন দুই ওপেনার লিটন দাস ও সৌম্য সরকার। তৃতীয় ওভারে বিনা উইকেটে ২৬ রান তুলেছিলেন দুজন। কিন্তু ওই ওভার থেকেই পতনের শুরু। চাতারার করা এ ওভারের শেষ বলে বোল্ড হন লিটন। পরের ওভারে চার বলের ব্যবধানে ফিরে যান সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহিম। বিনা উইকেটে ২৬ রান তোলা বাংলাদেশ মাত্র ১০ বলের ব্যবধানে ৪ উইকেটে ২৯! এরপর দ্রুতই ফিরে যান মাহমুদউল্লাহ ও সাব্বির রহমানও।

বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর শুরু দশম ওভারের পঞ্চম বল থেকে। মাদজিভাকে চার মারেন আফিফ।শন উইলিয়ামসের করা ১১তম ওভারে ১৫ রান তুলে নেন এ তরুণ। পরের ওভারে রায়ার্ন বার্লের প্রথম দুই বলে টানা দুই ছক্কা মারেন মোসাদ্দেক। ১২তম ওভার শেষে ৩৬ বলে ৪৯ রান দরকার ছিল বাংলাদেশের। হাতে ৪ উইকেট।

সপ্তম উইকেটে ৪৭ বলে ৮২ রানের জুটি গড়েন আফিফ-মোসাদ্দেক। তাঁদের এ জুটিই জয় এনে দিয়েছে বাংলাদেশকে। শেষ ১৮ বলে ২৮ রান দরকার ছিল বাংলাদেশের। ম্যাচ তখনো বেশ কঠিন ছিল। কারণ নিজেদের ইনিংসে জিম্বাবুয়ের পেসারদের বিপক্ষে খাবি খেয়েছেন ব্যাটসম্যানেরা। রান তো সেভাবে ওঠেইনি উল্টো পড়েছে উইকেট। আর শেষের এ তিন ওভার পেসারদের জন্য রেখে দিয়েছিলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজা।

কাইল জার্ভিসের করা ১৬তম ওভার থেবে ১৩ রান তুলে নেন মোসাদ্দেক-আফিফ। এর মধ্যে শেষ দুই বলে উইকেটরক্ষকের দুই পাশ দিয়ে চোখ ধাঁধানো দুটি চার মারেন আফিফ। লক্ষ্যটা নেমে আসে ১২ বলে ১৫ রানে। ১৭তম ওভারে ফিফটি তুলে নেন আফিফ। ২৪ বলে তাঁর এ ফিফটি অনেক দিন মনে রাখবেন দেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের হয়ে এটি দ্বিতীয় দ্রুততম ফিফটি।

চাতারার করা ১৭তম ওভারে ১০ রান আসায় জয়ের জন্য শেষ ওভারে দরকার ছিল ৫ রান। শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে আফিফকে তুলে নেন মাদজিভা। ১ ছক্কা ও ৮ চারে ২৬ বলে ৫২ রানের স্মরণীয় ইনিংসই খেললেন তিনি। আফিফ ফেরার পর ৪ বলে দরকার ছিল ৩ রান। সাইফউদ্দিন এর মধ্যে প্রথম ২ বলেই জয় নিশ্চিত করেন বাংলাদেশের। অপর প্রান্তে ২৪ বলে ৩০ রানে অপরাজিত ছিলেন মোসাদ্দেক।

এর আগে টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডারে কোনো ব্যাটসম্যানই সেভাবে দাঁড়াতে পারেননি। স্টাম্প ওপেন করে দিয়ে চাতারাকে খেলতে চেয়েছিলেন লিটন (১৪ বলে ১৯)। এ সুযোগে ইয়র্কারে লিটনকে বোল্ড করেন চাতারা। সৌম্য শুরু থেকেই বেশ অস্থির ছিলেন। তারই খেসারত গুণে আউট হন তিনি। আগের ওভারেই উইকেট পড়েছে, তা ভুলে কাইল জার্ভিসকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ দিয়েছেন সৌম্য (৭ বলে ৪)। সবচেয়ে বড় আঘাতটা লেগেছে ওই ওভারের (চতুর্থ) চতুর্থ বলে। জার্ভিসের বাউন্সার সামলাতে না পেরে ক্যাচ দেন মুশফিক (১ বলে ০)। পঞ্চম ওভারে সাকিবকে (৩ বলে ১ রান) তুলে নেন চাতারা।

পঞ্চম উইকেট জুটিতে বিপর্যয় মেরামতের চেষ্টা করেছিলেন মাহমুদউল্লাহ ও সাব্বির। কিন্তু নবম ওভারে প্রথম বলে মাহমুদউল্লাহকে (১৬ বলে ১৪ রান) এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন রায়ান বার্ল। পরের ওভারে সাব্বির রহমান ফেরায় হার চোখ রাঙাচ্ছিল বাংলাদেশকে।

Friday, September 13, 2019

সৌদি-আরবের নতুন কৌশল, ওমরাহজ্বে বিষেশ ছাড়!

সৌদি-আরবের নতুন কৌশল, ওমরাহজ্বে বিষেশ ছাড়!


সৌদি-আরবের নতুন কৌশল, ওমরাহজ্বে বিষেশ ছাড়!

সৌদি-আরবের নতুন কৌশল, ওমরাহজ্বে বিষেশ ছাড়! netbd21.com
ওমরা হজ্বে বিষেশ ছাড়




প্রতিটি মুসলমানের প্রানে লালিত স্বপ্ন সে যদি একাবার হজ্ব করতে পারত বা রাসূল (সঃ) রওজা জিয়ারতের সুযোগ পেত অবশেষে সেটিই বাস্তব হতে চলছে
সৌদি সরকার তাদের ভিশন ২০৩০ টোয়েন্ট্রি থার্টি অর্জনের উদ্দেশ্যে এবার হজ ও ওমরা হজে ব্যাপক সুযোগ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। সেইসঙ্গে পর্যটকদেরও সুবিধার আওতায় আনা হয়েছে। বুধবার দেশটির মন্ত্রিসভায় এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছে স্থানীয় গণমাধ্যম।
খবরে বলা হয়েছে, মন্ত্রিসভার নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী হজ ও ওমরাহ যাত্রীদের ভিসার ফি দুই হাজার সৌদি রিয়াল থেকে কমিয়ে মাত্র ৩০০ রিয়াল নির্ধারণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে একাধিকবার ওমরাহ পালনের জন্য ভিসা ফিও বাতিল করেছে রিয়াদ।
সৌদি গণমাধ্যম আল আরাবিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগের আইনে দেশটিতে ওমরাহ পালনের জন্য যাত্রীদের ভিসা ফি বাবদ টানা তিন বছর ২ হাজার সৌদি রিয়াল দিতে হতো। নতুন এই আইনের ফলে সেটি আর থাকছে না।
উল্লেখ্য, বর্তমান সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান দায়িত্ব নেওয়ার পর তেলের ওপর নির্ভরশীলতা কমাতে ২০৩০ সাল পর্যন্ত একটি পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। আর সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে দেশটিতে ব্যাপক সংস্কার করছেন তিনি।
এর অংশ হিসেবে দেশটিতে নারীদের গাড়ি চালানো, স্টেডিয়ামে গিয়ে খেলা দেখা, কনসার্ট, সিনেমা হল চালুসহ বেশ কিছু বিষয়ে অনুমতি দেওয়া হয়েছে। যা নিয়ে নানা সমালোচনার মুখে পড়েছেন বর্তমান বাদশা সালমান।
এদিকে, মন্ত্রিপরিষদের ভিসা ব্যবস্থা পুনর্গঠনের বিষয়ে রাজকীয় ফরমান জারি করায় দেশটির হজ এবং ওমরাহ বিষয়ক মন্ত্রী মোহাম্মদ সালেহ বিন তাহের বেনতেন বাদশাহ সালমান ও যুবরাজের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।
এর অংস হিসেবে সকল মুসলিম ওমরা সুযোগ পেলে সৌদির অর্থনৈতিক মন্দা ভাব ও কাটবে পক্ষান্তরে সকল মুসলিম ওমরা হজ্বের সুযোগ পাবে।

Tuesday, May 14, 2019

বিশ্বকাপে ফিক্সিং রোধকল্পে  নতুন ব্যবস্থা আইসিসির

বিশ্বকাপে ফিক্সিং রোধকল্পে নতুন ব্যবস্থা আইসিসির

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে৷
ICC 
ফিক্সিং নামক ভয়ানক পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে আইসিসি একটি নতুন পদক্ষেপ নিয়েছে।। প্রত্যেক দলের সাথে দুর্নীতি দমনের লোক রাখা হবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ!! 
ক্রিকেট একটি জনপ্রিয় খেলা৷ সারাবিশ্বেই ক্রিকেট খেলাপ্রমী অনেক লোক বিরাজমান । সকলেরই বিভিন্ন আসর,ক্রিকেট টুর্ণামেন্ট নিয়ে অধিক আগ্রহ লক্ষ্য করা যায়। বিশেষ করে বিশ্বকাপ নিয়ে প্রত্যেক দলের এবং দেশের ক্রিকেটপ্রেমী লোকেরা অপেক্ষা করে থাকে। 
আবার এসব খেলায় অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাও ঘটে থাকে।।  ফিক্সিং এর মধ্যে অন্যতম ।  ফিক্সিং করে ধরা পড়লে শাস্তি ভোগ করতে হয়। 
আইসিসি এইবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ যেন কোনোভাবেই ফিক্সিং না হয় সেজন্য কড়া পদক্ষেপ নিয়েছে।  
ফিক্সিং রোধকল্পে নতুন ব্যবস্থা আইসিসির তারা প্রত্যেক দলের সাথে দুর্নীতি দমনের লোক রাখার ব্যবস্থা নিয়েছে৷ 

"দ্যি টেলিগ্রাফ" এর প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।  এতে বলা হয়েছে, " প্রতিটি দলের সাথে একজন করে দুর্নীতি দমন কর্মকর্তা রাখা হবে।  প্রস্তুতি ম্যাচের শুরু থেকেই তারা থাকবেন। এমনকি যখন আসর শেষ হবে তখন দেশগুলোর প্লেয়ার,স্টাফ,ম্যানেজমেন্ট এর লোকেরা বিমানে উঠার আগ পর্যন্ত দুর্নীতি দমন এর লোক অবস্থান করবে। ""

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে,  "" প্রতিটি ভ্যেনুতে আগে একজন করে লোক বরাদ্দ করা ছিল।  যার ফলে মাঠের বাইরে ক্রিকেটারদের দিকে খেয়াল রাখা সহজ ছিল না।  তাই এখন ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ প্রত্যেক দলের সাথেই একজন করে লোক রাখা হবে।  ক্রিকেটাররা  শপিং মল, মাঠ, রাস্তাঘাট বা যেকোনো জায়গায় থাকুক না কেন তাদের সাথে ওই বরাদ্দ দেওয়া লোকটি সবসময় তাদের সাথেই থাকবে । ""

আইসিসির এই অসাধারণ পদক্ষেপটি নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় এবং ভালো একটি পদক্ষেপ। এই পদক্ষেপটির ফলে ক্রিকেটাররা যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সম্মুখীন হলে আইসিসির বরাদ্দ দেওয়া লোকটির সাথে যোগাযোগ করতে পারবে এবং সাহায্য গ্রহণ করতে পারবে৷ 

Monday, May 13, 2019

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ

ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ। 
মোস্তাফিজ ও মাশরাফির  অসাধারণ বোলিং পারফরম্যান্স এবং মুশফিক- সৌম্যর ব্যাটিং পারফরম্যান্স এ বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেছে।। 

Mustafizur Miraz 

বাংলাদেশ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার ম্যাচটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টস জিতে ব্যাটিং বেছে নিয়েছিল।।  ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা মোটামুটি ভালোই ছিল।  সুনীল এমব্রিস এবং শাই হোপ দুজনে উদ্ভোধনী জুটিতে ৫.৫ ওভারে ৩৭ রান করে।  সুনীল এমব্রিস মাশরাফির বোলিং এ সৌম্যর হাতে ক্যাচ তুলে দেন। ফলে দলীয় ৩৭ রানে ১ম উইকেটের পতন ঘটে।  তারপর মেহেদী মিরাজ এর বোলিং এ এলবিডব্লিউ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান ব্রাভো।। এরপর ৮৯ রানে রোস্তন চেজ মোস্তাফিজের অসাধারণ বোলিং এ মাহমুদউল্লাহর ক্যাচ এ আউট হয়ে যায়।  ৯৯ রানে জে কার্টার মোস্তাফিজের বলেই এলবিডব্লিউ আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যায়।  ৯৯ রানেই ৪ উইকেট পড়ে গেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে।।  কিন্তু ৫ম উইকেট জুটিতে শাই হোপ এবং জেসন হোল্ডার দুজনে মিলে শতরানের পার্টনারশিফ করে।।  এরপর দলীয় ১৯৯ রানে শাই হোপ মাশরাফির বোলিং এ উইকেটের পেছনে মুশফিক এর কাছে ক্যাচ তুলে আউট হয়ে যায় । এরপরেই জেসন হোল্ডার দলীয় ২০৭ রানে মাশরাফির বোলিং এ এলবিডব্লিউ হয়ে আউট হয়ে যায় । এরপর সাকিব আল হাসান বোলিং এ এসে ফাবিয়ান এলেনকে দলীয় ২১১ রানে এলবিডব্লিউর ফাদে ফেলে আউট করেন৷ তারপরে মোস্তাফিজুর রহমান ডেথ ওভারে বোলিং করতে এসে এসলি নার্স  এবং আর রেইফারকে আউট করেন ।  এক্ষেত্রে মোস্তাফিজ ৪ উইকেট শিকার করেন এবং মাশরাফি ৩ উইকেট শিকার করেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৪৭ রান তুলতে সক্ষম হয় ।

২৪৮ রানের টার্গেট এ ব্যাটিং করতে নেমে বাংলাদেশের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সৌম্য সরকার অর্ধশত রানের জুটি গড়েন।  দলীয়  ৫৪ রানে তামিম আউট হয়ে যায়।।  তারপর সৌম্যর এবং সাকিবের অসাধারণ ব্যাটিং এ বাংলাদেশ জয়ের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে।। দলীয় ১০৬ রানে সাকিব আউট হয়ে যায় । এরপরেই দলীয় ১০৭ রানে সৌম্যর আউটে বাংলাদেশ কিছুটা বিপদে পড়ে যায় । কিন্তু মুশফিকের দায়িত্বশীল ব্যাটিং এবং মিথুনের জুটি জয়ের পথেই রাখে।  দলীয় ১৯০ রানে মিথুন আউট হয়ে যায়।।  তারপর মুশফিক - মাহমুদউল্লাহর অসাধারণ ব্যাটিং পারফরম্যান্স এ বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারায় ।  মুশফিক ব্যক্তিগত ৬৩ রানে আউট হয়ে গেলেও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৩০ রানে অপরাজিত থাকেন৷

ফলাফল ; বাংলাদেশ ৫ উইকেটে জয়ী লাভ করেছে।

এই অসাধারণ জয়ের ফলে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে গেল বাংলাদেশ।
অভিনন্দন বাংলাদেশী টাইগারদের । 

Sunday, May 12, 2019

সাবিলা নূরের সাথে জুটি বাধলেন ক্রিকেটার তাসকিন একটি বিজ্ঞাপন এ

সাবিলা নূরের সাথে জুটি বাধলেন ক্রিকেটার তাসকিন একটি বিজ্ঞাপন এ

একটি বিজ্ঞাপন এ সাবিলা নূরের সাথে জুটি বাধলেন ক্রিকেটার তাসকিন। 
সাবিলা নূর এবং তাসকিন 
অভিনেত্রী সাবিলা নূরের সাথে বাংলাদেশের স্পিডস্টার বোলার তাসকিন আহমেদ কে  একটি বিজ্ঞাপন এ দেখা যাবে৷ 
বাংলাদেশের ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ অনেক সুদর্শন মানুষ।  তার চেহারা নায়কের মতো।  তিনি ইচ্ছে করলে ক্রিকেট খেলা বাদ দিয়ে ফিল্মে বা ছবি, সিনেমাতে নায়কের ভূমিকায় আত্নপ্রকাশ করতে পারতো।।তার চেহেরাটা এবং রুপ লাবণ্য মনোমুগ্ধকর। বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীভক্তরা তো একমাত্র তাসকিন আহমেদকেই বিদেশে খেলতে গেলে বিদেশীর মতোই মনে করেন!!  বাংলাদেশের অন্য কোনো ক্রিকেটার বিদেশে খেলতে গেলে তাদেরকে বিদেশী হিসেবে মনেই হয় না ;;;
বাংলাদেশী ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ এবং অভিনেত্রী সাবিলা নূরকে একটি বিজ্ঞাপন এ দেখা মিলবে।    স্মার্টফোন "অপ্পো ১১ প্রো" ভার্সন এর ফোনটি বাজারে আসছে৷  ঈদ উপলক্ষে স্মার্টফোন অপ্পো ১১ প্রো সেটটির কার্যকারিতা নিয়েই বিজ্ঞাপনটি বানানো হচ্ছে । 
এই বিজ্ঞাপনটি মূলত বানানো হয়েছে বিদেশ ফেরত এক তরুনীকে ঘিরেই।  বিদেশ থেকে দেশে তার বন্ধুকে নিয়ে তিনি দেশে প্রত্যাবর্তন করছেন৷ তখন পরিবারের সাথে, বন্ধুবান্ধবদের সাথে এবং আত্নীয়-সজন দের নিয়েই তারা ঈদের আনন্দে মেতে উঠেছেন। তারা প্রচুর আনন্দ - মজা করছেন৷। এমতাবস্থায় তরুণীটির স্মার্টফোন অপ্পো ১১ প্রো এর ক্যামেরায় তাদেরকে নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সেলফি, ফটো,  ভিডিও ধারণ করা হচ্ছে ।  আর এটাই এই বিজ্ঞাপন এর গল্পের মূল কাহিনী। 
ঈদ উপলক্ষে স্মার্টফোন অপ্পো ১১ প্রো এর এই বিজ্ঞাপন এ কাজ করতে যাচ্ছেন অভিনেত্রী সাবিলা নূর এবং বাংলাদেশের সুপার ফাস্ট স্পীড বোলার তাসকিন আহমেদ । 

তারা সবাই এই বিজ্ঞাপনটিতে কাজ করতে উচ্ছ্বসিতবোধ করছেন৷  

Saturday, May 11, 2019

আবু জায়েদ রাহী বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ডাক পেয়েও জায়গা হারালেন!!!

আবু জায়েদ রাহী বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ডাক পেয়েও জায়গা হারালেন!!!

আবু জায়েদ রাহী বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ডাক পেয়েও জায়গা হারালেন!!
Taskin Rahi 
 ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর বাংলাদেশ টিমের স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছিল।। যেদিন স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছিল সেদিনই স্কোয়াড নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা এবং বিতর্ক হচ্ছে।  ইমরুল কায়েসকে দলে না নেয়ার কারণে অনেক সমালোচনাও হয়েছে,  এমনকি তাকে দলে নেয়ার জন্য মিছিলও বের হয়েছিল।  আবার তাসকিন আহমেদ বিশ্বকাপে স্কোয়াড ঘোষণার সময় জায়গা পান নি।।  তিনি মিডিয়ার সামনে কেদে দিছিলেন। অবশেষে তাসকিন আহমেদ এর সেই কাদার প্রতিদান মিলে গেলো!! 

বিশ্বকাপ স্কোয়াড এ আবু জায়েদ রাহী এর জায়গায় নতুন করে তাসকিন আহমেদকে নেওয়া হলো। 
তাহলে এখন আবু জায়েদ রাহী এর তো কপাল পুরে গেল। তাসকিন আহমেদ এর  ভাগ্যটা অনেক ভালো ।। আবু জায়েদ রাহীকে স্কোয়াড থেকে বাদ দিয়ে কি তবে রাহীর সাথে চরম অন্যায় করা হলো??? 
আবু জায়েদ রাহী যখন বিশ্বকাপ স্কোয়াড এ জায়গা পেলেন তখন তিনি খুশিতে উদ্ভাশিত হয়ে গেছিলেন।  তিনি বিশ্বকাপে ভালো পারফরম্যান্স করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন। কিন্তু কপাল এ না থাকলে কি আর করার!! আবু জায়েদ রাহীর ভাগ্য বড়ই নিষ্ঠুর।  

আবু জায়েদ রাহীর বাবা নেই। তার বাবা যখন মারা যায়,  তখন আবু জায়েদ রাহী বিদেশে পাড়ী জমান। প্রবাসে বাস করতেন ।  কিন্তু সেখানে তিনি অনেক ভালো ক্রিকেট খেলার সক্ষমতা প্রকাশ করেছিল ।  তার পারফরম্যান্স দেখে তার বন্ধুবান্ধব এবং তার প্রবাসী মেন্টরগুলো তাকে বাংলাদেশ এ পাঠিয়ে দেয়৷  তখন থেকে তিনি বাংলাদেশ এই ক্রিকেট খেলা শুরু করেন। 
আবু জায়েদ রাহীকে স্কোয়াড থেকে বাদ দেওয়ার পেছনে কারণ হিসেবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেছেন,  "" আবু জায়েদ রাহী ইনজুরিতে পড়েছিলেন। তাই তিনি অনুশীলন এ অংশগ্রহণ করতে পারেন নি।  অবশ্য বিশ্বকাপ খেলা শুরু হতে অনেক দেরি। তাই এখন কেন তাকে বাদ দিয়ে তাসকিন আহমেদকে দলে নেয়া হলো কেন?? 
প্রশ্ন রয়েই গেল। 

Wednesday, May 8, 2019

ফাইনালে যেতে হলে আমাদের আরও ভালো এবং শক্তভাবে ক্রিকেট খেলতে হবে ; মাশরাফি

ফাইনালে যেতে হলে আমাদের আরও ভালো এবং শক্তভাবে ক্রিকেট খেলতে হবে ; মাশরাফি

গতকালকে বাংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৮ উইকেটের এক দারুন জয় তুলে নিয়েছে।
Mashrafe 

অনেকেই ভেবেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে বাংলাদেশ বিশাল ব্যবধান এ হেরে যাবে ।  কিন্তু বাংংলাদেশ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পাত্তাই দিলো না।  বাংলাদেশের দারুণ একটা জয় তুলে নিল । তামিম ইকবাল ৮০ রান করেছেন,  সৌম্য সরকার ৭৩ রান করেছেন ।  সাকিব এবং মুশফিক এর অসাধারণ ইনিংস এ বাংলাদেশ ৮ উইকেট এই ৩০ বল বাকি থাকতেই জিতে যায়৷

তারপর  ম্যাচ পরবর্তী পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেছেন, "  আমাদেরকে ফাইনালে যেতে হলে অবশ্যই আমাদের আরও ভালো পারফরম্যান্স করতে হবে এবং আমাদের শক্তভাবে ক্রিকেট খেলতে হবে।।  সেজন্য অবশ্যই পরের ম্যাচগুলোর দিকে ভালোভাবে নজর দেয়া জরুরি।  ""

বাংলাদেশ ত্রিদেশীয় সিরিজের শুরুর ম্যাচটাই ভালো খেলে অসাধারণ জয় লাভ করেছে৷  মাশরাফি বিন মর্তুজা আরও বলেন,  """ যেকোনো টুর্নামেন্টের শুরুর ম্যাচটাতে ভালো করতে পারলে জয়ী হতে পারলে প্রত্যেক দলেরই আত্নবিশ্বাস জেগে উঠে। প্রস্তুতি ম্যাচ হারার পরে ছেলেরা কঠোর পরিশ্রম করেছে এবং বিজয়ী হয়েছে।   পরের ম্যাচগুলোর জন্য একটা ভালো অবস্থানে থাকবে। ""

শুভকামনা বাংলাদেশের জন্য৷

Monday, May 6, 2019

আইপিএলের প্লে অফ ম্যাচগুলোর সূচি এবং কে কোন দলের মুখোমুখি হবে জেনে নিন

আইপিএলের প্লে অফ ম্যাচগুলোর সূচি এবং কে কোন দলের মুখোমুখি হবে জেনে নিন

আইপিএলের প্লে অফ ম্যাচগুলোর সূচি এবং কে কোন দলের মুখোমুখি হবে জেনে নিন। Ipl
আইপিএল ২০১৯ এর খেলাগুলো প্রায় শেষ এর দিকে।  এখন ৪ টি দল প্লে অফে উঠেছে ।  আইপিএল এর প্লে অফে খেলাগুলো প্রায় নিশ্চিত হয়ে গেছে।  এই  ৪ টি দলগুলো হচ্ছে ;
 ১. মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
২. চেন্নাই সুপার কিংস
৩. দিল্লি ক্যাপিটালস
৪. সানরাইজারস হায়দ্রাবাদ ।

এখানে মুম্বাই এবং চেন্নাই সুপার কিংস এই দুই দল কোয়ালিফায়ার খেলবে।  এর মধ্যে যে টিম জিতবো সেই টিম সরাসরি ফাইনালে চলে যাবে।।  আর এখানে যে দল হারবে সেই দলের আরেকটা সুযোগ থাকবে ফাইনালে যাওয়ার । 

আবার অপরদিকে দিল্লি ক্যাপিটালস এবং সানরাইজারস হায়দ্রাবাদ এলিমিনেটর ম্যাচ খেলবে।  এখানে যে দল জিতবে সেই দল  কোয়ালিফায়ার এ যাবে৷ সেখানে ১ম কোয়ালিফায়ার এ যে দল হারবে তার মুখোমুখি হবে ।  এখানে যে দল জিতবে সেই দল  ফাইনালে চলে যাবে।।  অপর দলটি বিদায় নিবে৷

এক নজরে জেনে নিন ম্যাচের সুচিগুলো ;

১ম কোয়ালিফায়ার; 
চেন্নাই সুপার কিংস বনাম মুম্বাই ইন্ডিয়ানস
(৭ই মে,, ২০১৯) রাত ৮টা

এলিমিনেটর ঃঃ  দিল্লি বনাম হায়দ্রাবাদ
(৮ই মে, ২০১৯) রাত ৮টা

২য় কোয়ালিফায়ার ;  প্রথম কোয়ালিফায়ার এ হেরে যাওয়া দল বনাম  এলিমিনেটর এ জয়ী দল
(১০ই মে,২০১৯)  রাত ৮টা

ফাইনাল ম্যাচ ;  ১ম কোয়ালিফায়ার বিজয়ী দল বনাম ২য় কোয়ালিফায়ার বিজয়ী দল

Wednesday, May 1, 2019

মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ না থাকলে আমার পরিবার নিয়ে রাস্তায় নামতে হতো,,,,,

মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ না থাকলে আমার পরিবার নিয়ে রাস্তায় নামতে হতো,,,,,

মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ না থাকলে আমার পরিবার নিয়ে রাস্তায় নামতে হতো,,,,, 
 
উপরের ছবিটি একটু লক্ষ্য করুন।  উপরের ছবিটিতে  যাকে দেখতে পাচ্ছেন তিনি হলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টিম বয়।  তার নাম রবিউল। আজকে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ত্রিদেশীয় সিরিজ ও আয়ারল্যান্ড সফরের জন্য চলে যাচ্ছে৷  
বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের  অন্যতম সেরা ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম 
উপরের ছবির রবিউল এর পরিবারের ৩ মাসের যাবতীয় খরচ এর টাকা দিয়ে গেলেন।  এছাড়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ  রবিউলকে একটা অটো কিনে দিছিলেন। রবিউল এর বাবা অসুখে ভুগছেন  ও তার চিকিৎসার জন্য এবং পরিবারের যাবতীয় খরচ মুশফিকুর রহিম দিচ্ছেন।  এতে মাহমুদউল্লাহরও ব্যাপক অবদান আছে । 
রবিউল বলেন, "" মুশফিক - মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ না থাকলে তাদের পরিবার নিয়ে রাস্তায় নামতে হতো,,, ""
মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর এরকম সহযোগিতার জন্যে তাদের প্রতি আরো ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা বেড়ে গেল। 



বিবিসি কিছুদিন আগে একটা খবর প্রকাশ করেছিল যে,, দাঁড়িতে অনেক জীবন থাকে।।  এরকম কটুক্তির বিরুদ্ধে বাংলাদেশী ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান এর জবাব খুবই সোজাসাপ্টা।।  তিনি দাঁড়িওয়ালা ছবিটিই প্রকাশ করেন । সাকিব আল হাসান এর প্রতি অনেক শ্রদ্ধাবোধ বেড়েই গেল।

উপরের ছবিটিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্য সাইফউদ্দিনকে দেখতে পাচ্ছেন।  তার বাবা ২০০৮ সালে মারা গিয়েছেন।  তার ভাইয়ের টিউশনির টাকার মাধ্যমে তিনি আজকে এই পর্যায়ে আসতে পেরেছেন।  তাই সাইফউদ্দিন বলেন,  আমি আজকের এই পজিশনে আসতে পেরেছি। এতে আমার ভাই এবং মায়ের বিশাল অবদান আছে।  সবাই দোয়া করবেন।

Monday, April 22, 2019

গ্রাফিক্স ডিজাইন সঠিক পছন্দ ক্যারিয়ার এর জন্য

গ্রাফিক্স ডিজাইন সঠিক পছন্দ ক্যারিয়ার এর জন্য

আপনি যদি একজন ফ্রীল্যান্সার হতে চান তাহলে আপনার ক্যারিয়ার গঠনের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইন ই হতে পারে সঠিক পছন্দ!
গ্রাফিক্স ডিজাইন 
আমরা শুরুতেই একটু জেনে নিই ;
গ্রাফিক্স ডিজাইন কী???
এটি একটি জার্মান শব্দ।  গ্রাফিক্স এর অর্থ হচ্ছে রেখা বা চিত্র। রেখা ব চিত্রের মাধ্যমে নকশা কাঠামো তৈরির প্রক্রিয়াকেই মুলত গ্রাফিক্স ডিজাইন বলা হয়।। 
গ্রাফিক্স ডিজাইন এর অনেক সঙ্গা রয়েছে। এর মধ্যে নেভিল ব্রডি (একজন বিশ্ববিখ্যাত গ্রাফিক্স ডিজাইনার))  বলেছেন,  "" রেখা,নকশা, ডিজাইন প্রয়োজনসমুহ  ,  তথ্য ও কালারের এমন একটা সংশ্লেষন যা এর অংশসমুহের সমষ্টির থেকেও বেশী কিছু তৈরি করতে পারে ""।
নেভিল ব্রডি তার এই উক্তির জন্য অনেক ধরনের আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। 

গ্রাফিক্স ডিজাইন এর উৎপত্তি ;
গ্রাফিক্স ডিজাইন এটি অনেক প্রাচীন,পুরনো।। এটি ফাইন আর্টস নাম পরিচিত ছিল.... কিন্তু উনিশ শতকের শেষের দিকে ব্রিটেন এ গ্রাফিক্স ডিজাইন ফাইন আর্টস থেকে আলাদা হয়ে যায় । তখন থেকে এটি সতন্ত্রভাবে আত্নপ্রকাশ করে।। এছাড়া একজন ইউএস নাগরিক একজন বই ডিজাইনার উইলিয়াম এডিসন ডুইজ্ঞিন্স এর হাত ধরে ১৯২২ সালে  গ্রাফিক্স ডিজাইন এর পথ চলা শুরু হয়েছি।। 
কিন্তু  ১৯৯৫-৯৬ সালে বাংলাদেশে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর যাত্রা শুরু হয়েছিল। 

এবার জেনে নিই গ্রাফিক্স ডিজাইন এর ক্ষেত্রসমুহ এবং ক্যারিয়ার হিসেবে গ্রাফিক্স ডিজাইন ;
আপনি যদি অনলাইন এ কাজ করতে চান তাহলে প্রথমেই গ্রাফিক্স ডিজাইনটিকে বেছে নিন।  প্রতিনিয়ত গ্রাফিক্স ডিজাইন এর ব্যাপক চাহিদা বাড়ছে।  গ্রাফিক্স ডিজাইন শুধু অনলাইন এই নয় বরং এটি অফলাইনেও ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। অনলাইন এ বিভিন্ন সাইটে যেমন গ্রাফিফিক্স ডিজাইন এর কাজ করা যায়।  তেমনি আপনার আশেপাশের বা নিকটবর্তী বিভিন্ন কোম্পানির গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজ করে দিতে পারবেন। আপনি যদি ভালো একটা ইনকাম বা হ্যান্ডসাম মানি পেতে চান তাহলে গ্রাফিক্স ডিজাইন এ যোগ দিন। যেকোনো রিপুটেড কোম্পানিতে ভালো সেলারী পাওয়া যায়।  আপনি নিজেকে দক্ষ হিসেবে প্রমাণ করে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে এসব কোম্পানিতে কাজ করেন৷ আমাদের প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে প্রত্যক্ষ পরোক্ষভাবে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর প্রয়োজন হয়।  সৃজনশীলতাটিকে কাজে লাগিয়ে সাফল্যের শিখরে আরোহন করতে চান? তাহলে প্রচুর সম্ভাবনাময় পেশা গ্রাফিক্স ডিজাইন এ যুক্ত হন । 
শিল্পবোধ সম্পন্ন যেকোনো ব্যক্তি এবং যার নিজের উপর ফুলি কনফিডেন্স আত্নবিশ্বাস আছে তারা ফ্রীল্যান্সিং এর মাধ্যমে গ্রাফিক্স ডিজাইন করে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইনাররা মুলত কি ধরনের কাজ করেন ঃঃ
১. ফ্যাশন ডিজাইন
২. টেক্সটাইল ডিজাইন
৩. আ্যাড মেকিং 
৪.ইন্টেরিয়র ডিজাইন 
৫. ব্রান্ডিং
৬. লোগো
৭. প্রমোশন 
৮. কার্টুন মেকিং
৯. ইন্টারেক্টিভ মিডিয়া
১০. প্রিন্ট মিডিয়া
১১. টিভি মিডিয়া 
১২. ওয়েব মিডিয়া
১৩. ফটোগ্রাফি
১৪. গেম ডিজাইন 
১৫. ফাইন আর্ট
১৬. ইনফরমেশন মিডিয়া
১৭. মোবাইল এপ ডিজাইন ............. ইত্যাদি । 

আরো অনেক সেক্টর এ গ্রাফিক্স ডিজাইন এর কাজগুলোর ছড়াছড়ি । গ্রাফিক্স ডিজাইনরা উপরোক্ত কাজগুলো করে  থাকেন৷


আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে চান,  তাহলে কিছু সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে। আপনি যদি দক্ষ হতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার সম্পর্কে জানা আবশ্যক।  তব এক্ষেত্রে  এডোবি ফটোশপ ও এডোবি ইলাস্ট্রেটর এই দুটি সফটওয়্যার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ধারণা ও ব্যবহার করার সক্ষমতা থাকতে হবেই৷

ফ্রীল্যান্সিং এর মার্কেটপ্লেসগুলোর মধ্যে গ্রাফিক্স এবং মাল্টিমিডিয়ার কাজ মোট ১৪% .. গতবছরে মাল্টিমিডিয়ার কাজ এ আয় বৃদ্ধির হার ছিল ৪৪%... এছাড়া ইল্যান্সে ২০১২-১৩ সালে গ্রাফিক্স রিলেটেড জব পোস্ট এর পরিমাণ ৯ লাখ ১৩ হাজারেরও বেশী । আর এক্ষেত্রে মোট ৫শত ৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার এর পেছনে ব্যয় হয়েছিল। 

তরুণ-তরুণীদের ফ্রীল্যান্সিং এ আসার জন্য অন্যতম সর্বাধিক পছন্দের সেক্টর হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন। এর মুল কারণ হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইন এর মাধ্যমে অনেক ইনকাম করা যায় এবং চাহিদা অনেক ।

এখন বিভিন্ন কোম্পানি শুধু অনলাইন নির্ভর হচ্ছে।  তারা এখন ইন্টারনেটের বিভিন্ন সাইটে তাদের প্রয়োজনীয় কাজগুলো পোস্ট করে থাকে৷  এমন একসময় আসবে তখন সব কোম্পানি অনলাইন এই কাজের অফার দিবে।  তাই ফ্রীল্যান্সিং এর চাহিদা কখনোই কমবে না,৷ এর চাহিদা শত শত গুণ বেড়েই যাবে।। 

Sunday, April 21, 2019

বিশ্বকাপে একটি রেকর্ডের মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি সাকিব আল হাসানের

বিশ্বকাপে একটি রেকর্ডের মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি সাকিব আল হাসানের

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ সাকিবের সামনে একটি মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি দিচ্ছে। 
Shakib Al Hasan 

কিছুদিন পরেই শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর খেলা। সবারই বিপুল উদ্দীপনা ও আগ্রহ রয়েছে।  ক্রিকেটপ্রেমীদের তো মনে হয় সময়ই কাটছে না৷  কবে আসবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ নিয়ে প্রচুর জল্পনা ও কল্পনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। 

আসছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এটিতে বাংলাদেশের ক্রিকেটার ও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে একটি রেকর্ডের মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি দিচ্ছে। 
সাকিব আল হাসান এবার ওয়ানডে ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ আর মাত্র ৭ উইকেট পেলেই তিনি একটি রেকর্ডের মাইলফলক স্পর্শ করবেন৷ বিশ্বকাপে ৫০০ রান  এবং ৩০ উইকেট নেয়ার কৃতিত্ত্ব লাভ করতে পারবেন।  ইতিহাসের ২য় তম ক্রিকেটার হিসেবে মাইলফলকটি স্পর্শ করার সুযোগ রয়েছে সাকিবের। 
এর আগে একমাত্র প্লেয়ার হিসেবে এই রেকর্ডটি শুধুমাত্র পাকিস্তানের ক্রিকেটার ইমরান খান এর রয়েছে।  ইমরান খান এর পরেই সাকিব আল হাসান এর মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি।। 
সাকিব বিশ্বকাপে  এই পযন্ত ৫৪০ রান করেছেন এবং ২৩ উইকেট নিয়েছেন৷ 
এখন সাকিব আল হাসান এর পালা শুধু ৭ উইকেট নেয়ার।  তিনি এই ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এ যদি আর মাত্র ৭ উইকেট নিতে পারেন তাহলেই বিশাল এই রেকর্ড অর্জন করতে পারবেন। 

আমরা সকল ক্রিকেটপ্রেমী মানুষেরা সাকিব আল হাসান এর এই রেকর্ডটি দেখার জন্য  খুবই আগ্রহের সাথে অপেক্ষা করছি। 
অনেক অনেক শুভকামনা রইল সাকিব আল হাসান এর জন্য। তিনি যেন এই রেকর্ডটির মাইলফলক স্পর্শ করতে পারেন এই দোয়া ও কামনা রইল। 

Saturday, April 20, 2019

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর দলগুলোর স্কোয়াড

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর দলগুলোর স্কোয়াড

বিশ্বকাপ ২০১৯ এর দলগুলোর স্কোয়াড জেনে নিন ;
World Cup 2019 

ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯  উপলক্ষে সবারই  একটু বেশী আগ্রহ রয়েছে।। আমরা যারা ক্রিকেটপ্রেমী এবং ক্রিকেটকে অনেক ভালোবাসি তারা তো মনে মনে দিনক্ষন গুনছেন যে কখন শুরু হবে।  যাইহোক,  আমাদের সকলেরই একটা প্রিয় টিম বা দল থাকে।  যদিও নিজ দেশকেই প্রথমে সাপোর্ট করাটাই শ্রেয়।

আজকে আমি আপনাদেরকে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯ এর দলগুলোর স্কোয়াডগুলো জানিয়ে দিচ্ছি।
প্রথমেই বাংলাদেশের স্কোয়াডগুলো জেনে নিন ;
১. মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক)
২. সাকিব আল হাসান (সহ-অধিনায়ক)
৩.তামিম ইকবাল
৪.মুশফিকুর রহিম
৫. মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
৬.মোহাম্মদ মিথুন
৭. সাব্বির হোসেন
৮. মেহেদী হাসান মিরাজ
৯. লিটন দাস
১০. সৌম্য  সরকার
১১. মোস্তাফিজুর রহমান
১২. রুবেল হোসাইন
১৩. মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন
১৪. মোসাদ্দেক হোসেন
১৫. আবু জাহেদ রাহী
 
অস্ট্রেলিয়ার স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. এরন ফিনস ( অধিনায়ক)
২. জেসন বেহেনড্রফ
৩. নাথান কোল্টার নাইল
৪.স্টিভেন স্মিথ
৫. মারকাস স্টয়নিস
৬. এডাম জাম্পা
৭.ডেভিড ওয়ারনার
৮. শন মার্শ
৯. গ্লেন ম্যাক্সওয়েল
১০. রিচার্ডশন
১১. উসমান খাজা
১২. মিচেল স্টার্ক
১৩. নাথান লায়ন
১৪. এলেক্স কেরী
১৫. প্যাট কামিন্স
 
এবার নিউজিল্যান্ডের স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. কেন উইলিয়ামশন ( অধিনায়ক) 
২. টম ব্লান্ডেল
৩. কলিন ডি গ্রান্ডহেম
৪. মারটিন গাপটিল
৫. টম লাথাম
৬.টিম সাউথি
৭. ট্রেন্ট বোল্ট
৮. মিচেল স্যান্টনার
৯. লুক ফারগুসন 
১০.মেট হ্যানরি
১১. ইশ সোদি
১২. হেনরি নিকোলস
১৩. রস টেইলর
১৪.কলিন মুনরো
১৫. জেমস নিশাম । 


 
ইন্ডিয়ার স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. ভিরাট কোহলি ( অধিনায়ক)
২. শিখর ধাওয়ান
৩. রহিত শর্মা 
৪. ধোনি
৫. কেদার যাদব
৬.কুলদীপ যাদব
৭. হার্ডিক পান্ডিয়া
৮. রাহুল
৯. দীনেশ কার্তিক
১০.জাসপ্রীত বোমরাহ
১১. চাহাল
১২. ভুবেনশ্বর কুমার
১৩. বিজয় শনকর
১৪. রবিন্দ্র জাদেজা
১৫. মোহাম্মদ শামি

 
এবার পাকিস্তান এর স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. সরফরাজ আহমেদ ( অধিনায়ক)
২. ফকর জামান
৩. ইমাম উল হক
৪. বাবর আজম
৫. সাদব খান
৬. শোয়েব মালিক
৭. ফাহিম আশরাফ
৮. শাহিন আফ্রিদি
৯.হাসান আলী
১০. আবিদ আলী
১১. মোহাম্মদ হাফিজ
১২.ইমাদ ওয়াসিম
১৩. জুনাইদ খান
১৪. মোহাম্মদ হাস্নাইন
১৫. হারিস শোহেল

 
সাউথ আফ্রিকার স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. ফাফ ডু প্লেসিস ( অধিনায়ক)
২. জেপি ডুমিনি 
৩. ডেভিড মিলার
৪. ডেল স্টেইন
৫.ফেলাকুওয়ে
৬. ইমরান তাহির
৭. হাসিম আমলা
৮. কাগিসো রাবাদা
৯. ডেন প্রেটোরিয়াস
১০. কুইন্টন ডি কক
১১. এনরিক নরতজে
১২. লুন্গি  নগিদি
১৩. এইডেন মারক্রাম
১৪. রসি ভেন ডার ডাসেন
১৫. তাবরাইজ শামসি

 

ইংল্যান্ডের স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. ইয়ন মর্গ্যান ( অধিনায়ক)
২. জনি বেয়ারস্টো
৩. জেসন রয়
৪. জো রুট
৫. বেন স্টোকস
৬. জস বাটলার
৭. ময়েন আলী
৮. ক্রিস ওকস
৯. লিয়াম প্লানকেট
১০. আদিল রশিদ
১১. মার্ক  উড
১২. এলেক্স হেলস
১৩. টম কারান
১৪. জো ডেনলি
১৫. ডেভিড উইলি


 
এবার শ্রীলঙ্কার স্কোয়াডগুলো জেনে নিই ;
১. দিমুথ করুনারথনে (অধিনায়ক)
২. লাহুরে থিরিমান্নে
৩. কুসাল পেরারা
৪. কুসাল মেন্ডিস
৫. এঞ্জেলো ম্যাথিউস
৬. থিসারা পেরারা
৭. চাতুরণঙ্গা ডি সিলভা
৮. ভান্ডারসে
৯. উদানা
১০. লাসিথ মালিঙ্গা 
১১. সুরাঙ্গা লাকমাল 
১২. প্রদীপ
১৩. জীবন মেন্ডিস
১৪. সিরিওয়ারদেনে
১৫. ফার্নান্দো